অবসর নেওয়ার পরও দলের জন্য নেটে বল সহ, মাঠে সাবস্টিটিউট হিসেবে ফিল্ডিং, দৃষ্টান্ত স্থাপন ওয়াগনারের

ক্রিকেটাররা সময়ের সঙ্গে সঙ্গে মাঠকে ছেড়ে যেতে চাইলেও অনেক সময় মাঠ তাদের ছেড়ে যেতে চায়না। তাই আমরা অবসরের পরেও একাধিক কিংবদন্তি ক্রিকেটারদের অনেক সময় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট না হলেও মাঠে নেমে খেলা উপভোগ করতে দেখেছি। এবার নিউজিল্যান্ড বনাম অস্ট্রেলিয়ার (New Zealand vs Australia Series) চলমান টেস্ট সিরিজে দেখা গেলো অন্যরকম ছবি।‌ সম্প্রতি অবসর নেওয়ার পর আবারও নিউজিল্যান্ডের হয়ে নিল ওয়াগনার (Neil Wagner) মাঠে নামলেন।

নিল ওয়াগনার দীর্ঘদিন ধরে নিউজিল্যান্ড দলের হয়ে টেস্ট ক্রিকেটে নিজের অবদান রেখেছেন। দক্ষিণ আফ্রিকায় জন্মগ্রহণকারী এই ক্রিকেটার ২০০৮ সালে নিউজিল্যান্ডে চলে আসেন এবং ৪ বছর পর তিনি জাতীয় দলের হয়ে অভিষেক করেন। এরপর মাঠে এই কিউই পেসারের আক্রমনাত্মক বোলিং সকলের মন জয় করে নেয়। এর সঙ্গেই নিউজিল্যান্ডের হয়ে তিনি ৬৪ টি টেস্ট ম্যাচে মোট ২৬০ টি উইকেট সংগ্রহ করেন। তবে চলমান অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড নতুন ক্রিকেটারদের সুযোগ দেয়ার জন্য ওয়াগনারকে দলের বাইরে রাখেন।

অন্যদিকে দলে জায়গা না পেয়ে ৩৭ বছর বয়সী এই কিউই তারকা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের সিদ্ধান্ত বেছে নেন। তবে ওয়াগনার বর্তমানে নিউজিল্যান্ড দলে আছেন। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম টেস্ট ম্যাচের আগে তিনি নেটে কিউই ব্যাটসম্যানদের প্রশিক্ষণের সময় বল করে প্রস্তুত করেছেন। অন্যদিকে আজ থেকে শুরু হওয়া দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচে দলের সঙ্গে তাকে জাতীয় সংগীত গাইতে দেখা যায়। এরপর ম্যাচের ৬৯ তম ওভারে একজন বিকল্প ফিল্ডার হিসাবে ওয়াগনার মাঠে নামেন।

এরপরেই ভক্তদের মধ্যে উন্মাদনা শুরু হয়। দর্শকদের মধ্যে অনেকেই তার ছবির কাটআউট পর্যন্ত স্টেডিয়ামে এনেছিলেন। একজন ক্রিকেটারের কাছে সত্যিই এর চেয়ে বড়ো পাওয়া আর কিছু হতে পারে না। অন্যদিকে অবসরের পর আবার দেশের হয়ে এই ভাবে মাঠে নামার ছবিও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বিরল। ম্যাচের প্রথম দিনের শেষে এখন নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়া প্রথম ইনিংসে ৯ উইকেট হারিয়ে ২৭৯ রান সংগ্রহ করেছে।