ভারতের মাটিতে ভারতের বিরুদ্ধে ম্যাচ খেলবে মেসিরা, আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করল কেরালা ক্রীড়ামন্ত্রক, জানুন কখন হবে ম্যাচ

যদি সবকিছু ঠিকঠাক থাকে, তাহলে আগামী বছর তথা ২০২৫ সালে ভারতের মাটিতে ভারতের বিপক্ষে খেলতে দেখা যেতে পারে আর্জেন্তিনাকে।

বিশ্বে ফুটবল খেলায় বরাবর দাপট দেখা গেছে আর্জেন্তিনা দলের। ইতিমধ্যে তারা ৩ বার ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপ জয়লাভ করেছে। শেষ ফুটবল বিশ্বকাপে তথা ২০২২ বিশ্বকাপে (FIFA World Cup 2022) জয়লাভ করেছে লিওনেল মেসির (Lionel Messi) আর্জেন্তিনা। পেনাল্টি শুটআউটে ফ্রান্সকে হারিয়ে জিতেছিল তারা। এবার তারা ভারতীয় ফুটবলপ্রেমীদের আনন্দ দিতে ভারতে এসে ফুটবল খেলতে পারে।

যদি সবকিছু ঠিকঠাক থাকে, তাহলে আগামী বছর তথা ২০২৫ সালে ভারতের মাটিতে ভারতের বিপক্ষে খেলতে দেখা যেতে পারে আর্জেন্তিনাকে। ম্যাচটি হবে ফিফা উইন্ডোর আওতায়। খবরটি জল্পনা নাকি সত্যি সেইসব কিছু বিচার না করেই খবর শুনে খুবই আনন্দিত ভারতীয় ফুটবল প্রেমীরা। আবার অনেকে তাদের পছন্দের ফুটবলার লিওনেল মেসিকে ভারতের মাটিতে দেখবেন বলে অপেক্ষারত হয়ে পড়েছেন।

আজ সূত্রের খবর থেকে জানা গেছে, ২০২৫ সালে কেরালার স্টেডিয়ামে দুটি ফ্রেন্ডলি ম্যাচ খেলার সম্ভাবনা রয়েছে ভারত বনাম আর্জেন্তিনা (India vs Argentina)। সেই রাজ্যের ক্রীড়ামন্ত্রী ভি আব্দুরাহিমান (V Abdurahiman) এমনটাই ইঙ্গিত দিয়েছেন নিজের ফেসবুক পোস্টে। যদিও এর আগে উনি আর্জেন্টাইন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের (AFA) সাথে কথা বলেছেন এই বিষয়ে।

আব্দুরাহিমান ওই পোস্টে লিখেছেন, “মনে আছে গতবছর কি হয়েছিল? আমাদের দেশে ম্যাচ খেলতে চেয়েছিল আর্জেন্তিনা। কিন্তু অতিরিক্ত অর্থ খরচ হবে ভেবে সেই প্রস্তাবে রাজি হয়নি ভারত। এই খবর শুনে সকল ভারতবাসী দুঃখ পেয়েছিল বিশেষ করে আমাদের রাজ্যের ক্রীড়াপ্রেমী ব্যক্তিরা অত্যন্ত মর্মাহত হয়েছিল। তাই সেইসব ক্রীড়াপ্রেমীদের মুখের দিকে তাকিয়ে আমরা আর্জেন্তিনা ফুটবল দলকে অনুরোধ করেছি আমাদের রাজ্যে এসে ম্যাচ খেলার। তারা খুব ভালো করেই জানে কেরালার জনগণ তাদের কতটা ভালোবাসে এবং সেই কারণেই ওরা আমাদের প্রস্তাবে রাজিও হয়ে গিয়েছে।”

সমস্ত দেশবাসীকে আনন্দিত হওয়ার মতো খবর দেওয়ায় আব্দুরাহিমান আরও জানিয়েছেন, “আর্জেন্তিনা আমাদের কেরালার স্টেডিয়ামগুলিতে একটি নয় বরংদুটি ফ্রেন্ডলি ম্যাচ খেলবে। প্রথমে তারা চলতি বছরের জুন মাসেই খেলার ইচ্ছে প্রকাশ করেছিল। কিন্তু অল্প সময়ের মধ্যে এইসব কিছু আয়োজনের কথা ভেবে আমরা রাজি হইনি। তবে আমরা ওদের থেকে আরও কিছুটা সময় চেয়েছি এবং ওরা এটাতে রাজিও হয়েছে। ওরা জানিয়েছে যে ২০২৫ সালের অক্টোবর মাসে পুরো দল এখানে আসবে। আমরা ভালো করেই জানি যে, এই কাজটা অত্যন্ত চ্যালেঞ্জিং হবে আমাদের কাছে, তবে দিনের শেষে আমাদের আসল লক্ষ্য হল ফুটবলপ্রেমীদের মুখে হাসি ফোটানো।”