‘নিজের প্রতাশ্যা পূরণ করতে পারিনি’, দুটি ভালো ইনিংসের পর অবশেষে নিজের খারাপ ফর্ম নিয়ে মুখ খুললেন গিল

ঘরোয়া ম্যাচে তিন নম্বরে ব্যাট করলেও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এই নম্বরে ব্যাট করা তার কাছে আলাদা চ্যালেঞ্জ ছিল বলে জানিয়েছেন গিল।

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজের (India vs England Test Series) আগে শুভমান গিলের (Shubman Gill) ফর্ম অত্যন্ত খারাপ ছিল। দীর্ঘদিন ধরে তার প্রত্যাশা পূরণ করতে না পেরে হতাশ হয়েছিলেন গিল। ভারতীয় ব্যাটিং অর্ডারে তিন নম্বরে নামা গিলের কাছে এখন নতুন অভিজ্ঞতা। এই নম্বরে ব্যাট করে তিনি এখনও পর্যন্ত পাঁচ ম্যাচের সিরিজের প্রথম তিন ম্যাচে ২৫২ রান করেছেন, যার মধ্যে বিশাখাপত্তনমে ১০৪ রান এবং রাজকোটে ৯১ রান করেছেন।

বুধবার সাংবাদিক সম্মেলনে শুভমান গিল বলেন, ”প্রত্যাশা পূরণ করতে না পারাটা একটু কঠিন ছিল। বাইরে বসে থাকা লোকেরা যখন এটি সম্পর্কে কথা বলে তখন আমি খুব বেশি মুগ্ধ হই না, তবে আমি কিছুটা হতাশ হয়েছিলাম কারণ আমি নিজের মধ্যে যে প্রত্যাশা রেখেছিলাম তা পূরণ করতে পারিনি। আপনার নিজের কাছ থেকে অবশ্যই প্রত্যাশা আছে কিন্তু আমি মনে করি না যে এটি আমার মানসিকতা পরিবর্তন করেছে। আমার নিজের কাছে এখনও এমন প্রত্যাশা আছে। আপনি কত তাড়াতাড়ি তাদের ভুলে যান এবং পরবর্তী চ্যালেঞ্জের জন্য প্রস্তুত হন সেটাই একজন বড় খেলোয়াড় এবং একজন গড়পড়তা খেলোয়াড়ের মধ্যে পার্থক্য। ‘

টানা ১১ ইনিংসে একটিও হাফ সেঞ্চুরি করতে পারেননি ২৪ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান। এর মধ্যে গত মাসে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে হায়দ্রাবাদ টেস্টও রয়েছে। ঘরোয়া ম্যাচে ওই নম্বরে ব্যাট করলেও তিন নম্বরে ব্যাট করা তার কাছে আলাদা চ্যালেঞ্জ ছিল বলে জানিয়েছেন গিল। তিনি বলেন- “ভারত এ ও রঞ্জি ট্রফিতে কয়েক ম্যাচে তিন ও চার নম্বরে ব্যাট করেছি। এটি এমন কিছু নয় যা আমি আমার জীবনে আগে করিনি। এ জন্য আমি আমার ব্যাটিংয়ে খুব বেশি টেকনিক্যাল পরিবর্তন করিনি।'”

“কিন্তু যখন আপনি ইনিংস ওপেন করবেন, তখন কন্ডিশন ভিন্ন থাকে কারণ আপনি চিন্তা করার খুব বেশি সময় পান না এবং টসের পরপরই আপনাকে ব্যাট করতে হবে। ব্যাটিংয়ে ছন্দ তৈরি করতে হবে। কিন্তু আপনি যখন তিন বা চার নম্বরে ব্যাট করছেন, তখন আপনাকে কন্ডিশন অনুযায়ী খেলতে হবে। একটা-দুটো উইকেট দ্রুত পড়লে ইনিংস গড়তে হবে। ওপেনার হিসেবে আপনি নিজের মতো করে খেলবেন কিন্তু মিডল অর্ডারে আপনাকে পরিস্থিতি অনুযায়ী খেলতে হবে।”