আবার মন জিতলেন সেহবাগ, ট্রেন দুর্ঘটনায় মা-বাবা হারানো শিশুদের জন্য বাড়ালেন সাহায্যের হাত

ভারতের প্রাক্তন ওপেনার বীরেন্দ্র সেহবাগ (Virender Sehwag) শুক্রবার ওড়িশার মর্মান্তিক ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহতদের সন্তানদের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। ট্রেন দুর্ঘটনায় (Balasore Train Accident) ২৭৫ জনেরও বেশি মানুষ মারা যায় এবং ১,১৭৫ জন আহত হয়। শালিমার-চেন্নাই করমন্ডেল এক্সপ্রেস, বেঙ্গালুরু-হাওড়া সুপারফাস্ট এবং একটি মালবাহী ট্রেনের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এটি ভারতের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় ট্রেন দুর্ঘটনা।

বীরেন্দ্র সেহবাগ জানিয়েছেন, যে সব শিশু দুর্ঘটনায় বাবা-মাকে হারিয়েছে, তাঁদের বিনামূল্যে সেহবাগ আন্তর্জাতিক বোর্ডিং স্কুলে পড়ানো হবে। ঘটনার একটি ছবি পোস্ট করে সেহবাগ লিখেছেন- “এই ছবি আমাদের অনেকদিন বিরক্ত করবে। দুঃখের এই সময়ে আমি অন্তত যা করতে পারি তা হল এই বেদনাদায়ক দুর্ঘটনায় যারা প্রাণ হারিয়েছেন তাদের সন্তানদের পড়াশোনার যত্ন নেওয়া। আমি সেহবাগ স্কুলের বোর্ডিং সুবিধায় এই জাতীয় শিশুদের বিনামূল্যে শিক্ষা দেব। সমস্ত পরিবারের জন্য প্রার্থনা এবং সমস্ত সাহসী পুরুষ ও মহিলা যারা উদ্ধার অভিযানে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন, মেডিকেল টিম এবং স্বেচ্ছাসেবীরা যারা স্বেচ্ছায় রক্ত দান করছেন তাদের জন্য হাততালি। এতে আমরা একসাথে আছি।”

এই ঘোষণার পর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই বীরেন্দ্র সেহবাগের প্রশংসা করছেন। ২০১৫ সালে শেষবার ভারতের হয়ে খেলা ৪৪ বছর বয়সী সেহবাগের হরিয়ানায় একটি স্কুল রয়েছে। এর আগে ২০১৯ সালে পুলওয়ামা হামলার পর শহিদের সন্তানদের জন্য একই ধরনের প্রস্তাব দিয়েছিলেন তিনি।