বিশ্বের সেরা স্টেডিয়ামও বৃষ্টিতে জলমগ্ন, ইডেনের উদাহরণ দিয়ে গুজরাটকে শিক্ষা CAB সভাপতির

ঝাঁ চকচকে, অত্যাধুনিক, ৮০০ কোটি খরচ সম্পন্ন আমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামকে (Narendra Modi Stadium, Ahmedabad) পিছনে ফেলে এবারের আইপিএলে যুগ্মভাবে সেরা পিচ এবং মাঠের পুরষ্কার পায় কলকাতার ইডেন গার্ডেন্স (Eden Gardens, Kolkata) এবং মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়াম (Wankhede Stadium, Mumbai)। এরপর থেকে প্রত্যেক কথাই ইডেন গার্ডেন্সের সাথে নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামের তুলনা করতে দেখা গেছে অনেককেই।

একটানা দুইমাস ধরে চলা আইপিএলের লিগপর্বের ম্যাচগুলির মধ্যে ৭ টি ম্যাচ হয় কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে। এবছর কোনো প্লে অফ ম্যাচও রাখা হয়নি ইডেনে। অথচ এই ইডেনেই বর্তমানে ভারতের সবথেকে ভালো নিকাশীব্যাবস্থা রয়েছে, তারপরেও কেনো দেওয়া হলো না ইডেনে প্লে অফের ম্যাচ, এই নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় প্রশ্নের আঙুল উঠেছে।

বিশ্বের একমাত্র স্টেডিয়াম হিসাবে বৃষ্টির সময় পুরোপুরি ঢেকে দেওয়া হয় কলকাতার ইডেন গার্ডেন্স। এছাড়াও মাঠটি বহু পুরোনো হলেও এখানে জল নিকাশীব্যাবস্থা খুব ভালো রয়েছে, তার ধারে কাছেও নেই নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামের ব্যাবস্থাগুলি। লক্ষাধিক সিট থাকলেও, মাঠের ব্যাবস্থাগুলি খুব ভালো নয় আমেদাবাদের।

আমরা রবিবার রাতেই লক্ষ্য করেছি, নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামের ছাদ ফুঁটো হয়ে জল পড়ছে। তারপর সোমবার পিচ থেকে কভার সরানোর সময় পিচেই জল জমে যায়, যার জন্য মাঠকর্মীদের স্পঞ্জের সাহায্য নিয়ে জল সরাতে দেখা যায়। এই দৃশ্য দেখে তোলপাড় ক্রিকেট বিশ্ব। বিশ্বের এক নম্বর স্টেডিয়াম হওয়া সত্ত্বেও এই সমস্ত বিষয়ে গাফিলতি থেকে গেছে বলে অনেকেই মনে করেন। তবে এবার এই বিষয়ে মুখ খুলতে দেখা গেলো ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অফ বেঙ্গলের (CAB) স্নেহাশীষ গাঙ্গুলি (Snehashish Ganguly)।

২৯ মে তথা সোমবার ফাইনালের রিজার্ভ ডেতেও এইধরনের পরিস্থিতি দেখে স্নেহাশীষ গাঙ্গুলি গুজরাট ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনকে ইডেন গার্ডেন্সের মতো কভার ব্যাবহারের জন্য অনুরোধ করেছেন। ইডেনের মতো নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামও পুরোপুরি কভার করে দিলে কিছুটা হলে সমস্যার সমাধান খুঁজে পাওয়া যাবে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন স্নেহাশীষ বাবু।