ভারতীয় মহিলা হকির সুবর্ণ দিন, জাপানকে হারিয়ে যুব এশিয়া কাপের ফাইনালে ভারত, সাথে এলো আরো বড় প্রাপ্তি

মহিলাদের জুনিয়র এশিয়া কাপ (Junior Asia Cup) হকির সেমিফাইনালে ভারত জাপানকে ১-০ গোলে পরাজিত করে ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে এবং এফআইএইচ জুনিয়র বিশ্বকাপের (FIH Junior World Cup) টিকিটও অর্জন করেছে। আগামী ২৯ নভেম্বর থেকে ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত সান্তিয়াগোতে অনুষ্ঠিত হবে জুনিয়র বিশ্বকাপ। ২০২৩ সালের মহিলা জুনিয়র এশিয়া কাপের শীর্ষ তিনটি দল বৈশ্বিক প্রতিযোগিতায় খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে।

২০১২ সালের পর দ্বিতীয়বারের মতো জুনিয়র এশিয়া কাপের ফাইনালে উঠেছে ভারতীয় মহিলা দল। ম্যাচের প্রথম তিন কোয়ার্টার গোলশূন্য থাকার পর ৪৭তম মিনিটে ফিল্ড গোল করে ভারতের খাতা খোলেন সুনিতা। রবিবার ফাইনালে ভারত মুখোমুখি হবে চীন বা কোরিয়ার বিরুদ্ধে। এই কঠিন ম্যাচে এই দুই দলই গোল করার অনেক সুযোগ পেলেও ‘সেট পিসে’ কোনো দলই গোল করতে পারেনি। ভারত ও জাপান মোট ১২টি পেনাল্টি কর্নার পায়।

ভারত আক্রমণাত্মকভাবে ম্যাচ শুরু করে এবং দীর্ঘ সময় ধরে বল ধরে রেখে জাপানের বৃত্তে আধিপত্য বিস্তার করে। ভারতের প্রাথমিক আধিপত্যের পরে, জাপান ম্যাচে ফিরে আসতে সক্ষম হয়েছিল। প্রথম কোয়ার্টারের শেষ মিনিটে জাপান পেনাল্টি কর্নার পেলেও ভারতীয় গোলরক্ষক মাধুরী কিন্ডো (Madhuri Kindo) সহজেই দুর্বল ড্রাগ ফ্লিককে আটকে দেন। এর পরপরই আরেকটি পেনাল্টি কর্নার পেলেও এবার গোলপোস্ট থেকে অনেক দূরে চলে যায় জাপান।

দ্বিতীয় কোয়ার্টারের তৃতীয় মিনিটে জাপান আরেকটি পেনাল্টি কর্নার পেলেও মাধুরী আবারও ভালো রক্ষণ করেন। পরের মিনিটে ভারতীয় খেলোয়াড় বৈষ্ণবী ফালকে পেনাল্টি কর্নার থেকে গোল করার সুযোগ আটকে দেন জাপানের গোলরক্ষক মিসাকি সাইতো। বিরতির আগে দুই দল যথাসাধ্য চেষ্টা করলেও কেউই সাফল্য পায়নি। বিরতির পর জাপান বলকে আরও বেশি নিজেদের পক্ষে রাখার চেষ্টা করে এবং এরপর আগ্রাসী অবস্থান নিয়ে ভারতের ওপর চাপ সৃষ্টি করে।

তবে ৩৯তম মিনিটে লিড নেওয়ার সুবর্ণ সুযোগ পেয়েছিল ভারতীয় দল। তবে পেনাল্টি স্ট্রোককে গোলে রুপান্তর করতে ব্যর্থ হন আনু। এরপর আবারও পেনাল্টি কর্নার পেলেও এবারও হতাশার মুখে পড়তে হয়েছে ভারতীয় দলকে। ম্যাচের শেষ কোয়ার্টারে টপ্পোর (Toppo) গোলে অচলাবস্থার অবসান ঘটায় ভারত। মহিমা তেতে (Mahima Tete) ও জ্যোতি ছেত্রীর (Jyoti Chhetri) করা সুযোগে গোলকরে ভারতকে এগিয়ে দেন টপ্পো। লিড নেওয়ার পর ভারতীয় খেলোয়াড়রা আক্রমণ জোরদার করলেও এর সুফল পায়নি তারা। ম্যাচের শেষ মুহূর্তে জাপানের পেনাল্টি কর্নারে আরেকটি দুর্দান্ত ডিফেন্স করে দলকে জেতাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন মাধুরী।