দিল্লিতে কুস্তিগীরদের বিক্ষোভ চলাকালীন পুলিশদের অত্যাচার, টুইটে সরব সুনীল ছেত্রী থেকে নীরাজ চোপড়া

ভারতের শীর্ষ কুস্তিগীররা তরুণ ক্রীড়াবিদদের যৌন হয়রানির অভিযোগে কুস্তি ফেডারেশনের সভাপতির পদত্যাগ এবং গ্রেপ্তারের দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে দিল্লিতে আন্দোলন করে আসছেন। রবিবার রাজধানীতে বিক্ষোভ করার সময় দিল্লি পুলিশ তাদের আটক করে। এরপরেই গোটা ভারত জুড়ে এই ঘটনার প্রতিবাদ করা হয়। ভারতের একাধিক ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব টুইটারে বিষয়টির প্রতিবাদ জানান।

এইদিন ভিনেশ ফোগাট (Vinesh Phogat), সাক্ষী মালিক (Sakshi Malik) এবং বজরং পুনিয়া (Bajrang Punia) মতো বিশ্ববরেণ্য কুস্তিগীরদের পুলিশ টেনে হেঁচড়ে প্রিজন ভ্যান তোলে। এবং পরবর্তীতে আইনশৃঙ্খলা লঙ্ঘনের জন্য তাদের বিরুদ্ধে এফআইআরও দায়ের করা হয়। ২৭ মে এই ঘটনার আগের রাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়, কুস্তিগীরদের প্রতিনিধিরা সমাধানের জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সাথে বৈঠক করেন। কিন্তু কুস্তিগীররা রেসলিং ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া (WFI)-এর প্রধান ব্রিজ ভূষণ শরণ সিংকে অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবিতে‌ অটল থাকার কারণে কোনরকম সমাধান সূত্রে পৌঁছানো সম্ভব হয়নি।

রবিবার ঘটনার পর একাধিক ক্রীড়া ব্যক্তিত্বরা টুইটারে পুলিশদের অত্যাচারের বিষয়টি নিয়ে প্রতিবাদ জানান। সোনা জয়ী ভারতীয় অলিম্পিয়ান নীরাজ চোপড়া (Neeraj Chopra) সাক্ষীর টুইটারে পোস্ট করা একটি ভিডিওর প্রতিক্রিয়া দিয়ে লিখেছেন, “আমি এই ভিডিওটি দেখে কষ্ট পেয়েছি। বিষয়টিকে ভালোভাবে সমাধান করা যেত।” ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে ভিনেশ ও সঙ্গীতাকে মাটিতে ধাক্কা দিয়ে ঠেলে দিচ্ছে পুলিশ কর্মকর্তারা।

ভারতীয় ফুটবলের অধিনায়ক সুনীল ছেত্রী (Sunil Chhetri) টুইট করে লেখেন, “কেন আমাদের কুস্তিগীরদের কোনো বিবেচনা ছাড়াই টেনে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে? কখনোই কারো সাথে এইভাবে আচরণ করা যায় না। আমি সত্যিই আশা করি এই পুরো পরিস্থিতিটি যেভাবে মূল্যায়ন করা উচিত সেইভাবে দেখা হবে।”

প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার ইরফান পাঠানও (Irfan Pathan) ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। ইরফান পাঠান লিখেছেন, ” আমাদের অ্যাথলিটদের এইভাবে দেখে আমি খুব দুঃখিত। দয়া করে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বিষয়টি সমাধান করুন।”