শান্তির প্রতীকের লোগো ব্যবহার করতে না দেওয়ায়, কেশব মহারাজ এবং পুরাণের‌ ধর্মালম্বী লোগো টেনে ICC-কে প্রশ্ন খাওয়াজার

গতকালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টেস্ট (Australia vs Pakistan 2nd Test) খেলতে নামার সময় অজি ওপেনার উসমান খাওয়াজা (Usman Khawaja) গাজার মানবিক সংকটের বিষয়ে সচেতনতা বাড়াতে জুতোতে একপ্রকার লোগোর ব্যাবহার করেছিলেন। তার জুতোগুলিতে ছিল একটি পাখিসহ জলপাই গাছের শাখার চিহ্ন। এছাড়া হাতে কালো ব্যান্ড ব্যাবহার করেছিলেন। যার জন্য আইসিসি এই বিষয়টি পুরোপুরি প্রত্যাখান করে এবং তাকে এইসব থেকে বিরত থাকতে বলে।

খাওয়াজা স্পষ্টভাবে জানিয়েছিলেন এটি তার ব্যাক্তিগত শোক, সেই কারণে তিনি এসবের ব্যাবহার করেছিলেন। তিনি মনে করেন, তার ব্যাবহার করা ওই চিহ্নগুলি ছিল শান্তির প্রতীক৷ কিন্তু আইসিসি থেকে তাকে অভিযুক্ত করায় বিষয়টিকে তিনি মন থেকে একটু অন্যভাবে নিয়েছিলেন। আইসিসির অভিযোগকে সামনে রেখে খাওয়াজা হতাশ হয়ে ডবল স্ট্যান্ডার্ড এবং ইনকন্সটেন্সি বলে সোশ্যাল মিডিয়ায় হ্যাজট্যাগ ব্যাবহার করেছেন।

অজি ওপেনার সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন, তাতে প্রত্যেকের ধর্মালম্বী বিষয়গুলি তুলে ধরেছেন তিনি। এই ভিডিও থেকে এটুকু স্পষ্ট যে গতকাল বিষয়টি ঠিক কিভাবে নিয়েছেন খাওয়াজা। তিনি ভিডিওতে ক্যারিবিয়ান তারকা নিকোলাস পুরানের (Nicholas Pooran) ব্যাটে খ্রীস্টান ধর্মের চিহ্ন ব্যাবহারের ছবিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ফুটিয়ে তুলেছেন। ওই একই ভিডিওতে খাওয়াজা তার সতীর্থ মারনাস লাবুসেনের (Marnus Labuschagne) ব্যাটে ব্যাবহার করা চিহ্নকেও ফুটিয়ে তুলেছেন। এছাড়া কেশব মহারাজের (Keshav Maharaj) ব্যাটে ব্যাবহারী ওম চিহ্নকেও চিহ্নিত করেছেন খাওয়াজা।

খাওয়াজা সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই ভিডিও পোস্ট করে তাতে লিখেছেন, “সকলকে মেরি ক্রিসমাস, কিছু সময় তোমাকে শুধু হাসতেই হয়, ঠিক যেমন বক্সিং ডের মতো।” খাওয়াজা ওই ভিডিওতে একটি অ্যাপ্লিকেশনেরও ব্যাবহার করেছেন, সেখানে তিনি কোনো ধর্মকে ছোট না করে নিজের মতো করে বলেছেন। সেখানে বলা ছিল, যে যেটা বিশ্বাস করে সে সম্মানের সাথে সেটা করেছে। কিন্তু তার নিজের বেলার আইসিসির এমন প্রতিক্রিয়ার সাথে একেবারেই সহমত নন অজি ওপেনার।

দেখুন সেই ভিডিও: