এই তিনটি‌ গুরুত্বপূর্ণ কারণে‌ বিশ্বকাপ ২০২৪ এ শুভমান গিলের বদলে‌ যশস্বীকে জায়গা দেওয়া উচিত

সাম্প্রতিক সময় টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে ওপেনার হিসাবে যশস্বী জয়সওয়াল অসাধারণ পারফরম্যান্স করছেন।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের (T20 World Cup 2024) আগে ক্রিকেটাররা এখন জাতীয় দলে জায়গা করে নেওয়ার জন্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দুরন্ত পারফরম্যান্স করছেন। অন্যদিকে ভারতের হয়ে গতবছর একদিনের বিশ্বকাপে শুভমান গিল (Shubman Gill) সেইভাবে নজর কাড়তে পারেননি। তবে সাম্প্রতিক সময় টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে ওপেনার হিসাবে যশস্বী জয়সওয়াল (Yashasvi Jaiswal) অসাধারণ পারফরম্যান্স করছেন। তাই ২০২৪‌ সালের বিশ্বকাপে গিলের পরিবর্তে তিনি ওপেনার হিসাবে আসতে পারেন। এখানে যশস্বী জয়সওয়ালের সমর্থনে ৩ টি গুরুত্বপূর্ণ কারণ আলোচনা করা হলো।

১) আক্রমণাত্মক ব্যাটিং শৈলী

একদিনের ফরম্যাটে শুভমান গিল ভারতীয় ওপেনার হিসাবে ম্যাচ চলাকালীন ইনিংসে গড়ার ক্ষেত্রে অনেকটা সময় পান। কিন্তু টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে দ্রুত আক্রমণাত্মকভাবে রান তুলতে হয়। সাম্প্রতিক সময় যশস্বী জয়সওয়াল প্রমান করেছেন যে তিনি প্রথম বল থেকেই ভালো শট খেলে বাউন্ডারি মারা শুরু করতে পারেন। তাই ২০২৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ওপেনার হিসাবে জয়সওয়াল অনেকটাই এগিয়ে আছেন।

২) বাম-হাত এবং ডান-হাত বিকল্প

ভারতের টপ অর্ডারে শুভমান গিল, সূর্যকুমার যাদব (Suryakumar Yadav), শ্রেয়াস আইয়ার (Shreyas Iyer) এবং পরবর্তীতে হার্দিক পান্ডিয়া (Hardik Pandya) একাদশে এলে ৬ জন ডানহাতি ব্যাটসম্যান হয়ে যাবে। কিন্তু যশস্বী জয়সওয়ালকে দলে অন্তর্ভুক্ত করা হলে ভারতের ব্যাটিং অর্ডারে বাঁ-হাত এবং ডান-হাতের সমন্বয় থাকবে যা নতুন বলের বিরুদ্ধে সহায়ক হবে। এই পরিকল্পনা প্রতিপক্ষদের বোলিং করার ক্ষেত্রে বাঁধা তৈরি করবে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন।

৩) বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ না খেলার সুবিধা

যশস্বী জয়সওয়াল এখনও পর্যন্ত দেশের হয়ে বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেননি। তিনি এখনও পর্যন্ত দেশের হয়ে ১৬ টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচের সঙ্গে সঙ্গে ৪ টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন। অন্যদিকে কয়েক বছর ধরে শুভমান গিল ধারাবাহিকভাবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন। তাই ২০২৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে যশস্বী জয়সওয়ালের মতো অচেনা ব্যাটসম্যানকে খেলার জন্য বিপক্ষ বোলারদের যথেষ্ট সমস্যা হবে। তাই তার মতো ওপেনারের ২০২৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতীয় দলে আসতে পারেন।