তিনজন এমন প্লেয়ার যাদের বিশ্বকাপের জন্য ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ওয়ানডে দলে নেওয়া উচিত ছিল

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (BCCI) কাল আনুষ্ঠানিকভাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সফরের জন্য একদিনের ও টেস্ট সিরিজের দল ঘোষণা করেছে। এই দলে রুতুরাজ গায়কোয়াড় (Ruturaj Gaikwad), যশ্বস্বী জসওয়ালের (Yashasvi Jaiswal) মতো তরুণ ক্রিকেটাররা জায়গা পেয়েছেন। এই বছরের শেষের দিকে একদিনের বিশ্বকাপের আগে রোহিত (Rohit Sharma) বাহিনীর কাছে প্রতিটি ম্যাচ এখন খুব গুরুত্বপূর্ণ।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের (West Indies) বিপক্ষে ভারতের একদিনের সিরিজের প্রথম ম্যাচটি ২৭ শে জুলাই থেকে শুরু হবে। ২০২৩ সাল ভারতীয় ক্রিকেট দলের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই বছরের শেষের দিকে ভারতের মাটিতে একদিনের বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হতে চলেছে। এর আগে এশিয়া কাপের মতো গুরুত্বপূর্ণ টুর্নামেন্ট খেলবে তারা। তাই আসন্ন একদিনের সিরিজগুলিতে এই তিনজন ক্রিকেটারকে দলে নিয়ে পরীক্ষা করা উচিত ছিল বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

১) টি নটরাজন (T Natarajan)

টি নটরাজন আইপিএলের (IPL) পর ভারতের হয়ে টি-টোয়েন্টি ম্যাচেও অসাধারণ পারফরমেন্স করেছেন। তবে ভারতের হয়ে একদিনের ম্যাচে তিনি বেশি সুযোগ পাননি। এখনো পর্যন্ত নটরাজন মাত্র ২ টি একদিনের ম্যাচ খেলে ৩ টি উইকেট নিয়েছেন। জয়দেব উনাদকাট দলে থাকা সত্ত্বেও আর একজন বাঁ হাতি পেসার হিসাবে টি নটরাজনের জায়গা পাওয়া উচিত বলে মনে করছেন অনেকেই।

২) অর্শদীপ সিং (Arshdeep Singh)

এই বছর আইপিএলে অসাধারণ ফর্মে ছিলেন অর্শদীপ সিং। ভারতের হয়ে জাতীয় দলেও ভালো পারফরমেন্স করেছেন তিনি। কিন্তু ২০২২ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতের হারের পর তিনি আর জাতীয় দলে নিয়মিত জায়গা পাননি। ভারতের হয়ে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ২৬ টি ম্যাচ খেললেও একদিনের ক্রিকেটে মাত্র ৩ টি ম্যাচে সুযোগ পেয়েছেন। তাই জয়দেব উনাদকাটের বদলে এই বাঁ হাতি পেসারকে একদিনের ক্রিকেট দলে জায়গা দিয়ে পরীক্ষা করা উচিত ছিল।

৩) রিঙ্কু সিং (Rinku Singh)

আসন্ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে অনেকেই মনে করেছিলেন রিঙ্কু সিং ভারতীয় দলে জায়গা পেতে পারেন। এই বছর আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্সের (KKR) হয়ে অসাধারণ পারফরম্যান্স করে তিনি সকলকে মুগ্ধ করেন। এছাড়াও তিনি উত্তরপ্রদেশের হয়ে ঘরোয়া ক্রিকেটে ৫১ ম্যাচে ১৭৪৯ রান করেছেন। রিঙ্কু ৫ বা ৬ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে ফিনিশার হিসাবে দলকে ভরসা জোগান। ভারতীয় একদিনের ক্রিকেটে এই মুহূর্তে একজন গুরুত্বপূর্ণ ফিনিশারের খুব প্রয়োজন। তাই রিঙ্কু সিং-কে বিশ্বকাপের আগেই দলে রেখে পরীক্ষা করা উচিত বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।