তিনজন প্লেয়ার যারা ২০২২ বিশ্বকাপের অংশ ছিলেন, কিন্তু এবছর তারা দলের ধারে কাছেও নেই

মহেন্দ্র সিং ধোনির (MS Dhoni) নেতৃত্বে ভারত ২০১৩ সালে শেষ আইসিসি টুর্নামেন্ট জিতেছিলো। কিন্তু তারপর থেকে প্রায় এক দশকে ভারত একাধিক আইসিসির গুরুত্বপূর্ণ টুর্নামেন্টের ফাইনাল ও সেমিফাইনালে পৌঁছালেও তারা চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি। গতবছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের (T20 World Cup) সেমিফাইনালে ভারত ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১০ উইকেটে হেরে যায়। আজ আমরা এমন ৩ ক্রিকেটারকে নিয়ে আলোচনা করবো যারা ২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দলে প্রথম পছন্দ হিসাবে থাকলেও এখন আর ভারতীয় দলে জায়গা পাচ্ছেন না।

১) দীনেশ কার্তিক (Dinesh Karthik)

২০২২ আইপিএলে (IPL) রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের (RCB) হয়ে ভালো পারফরম্যান্স করার পর দীনেশ কার্তিক সেই বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতীয় দলে জায়গা পান। তবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে মাত্র ৪ ম্যাচ খেলে ১৪ রান করেন। এরপর চোটের কারণে দলের বাইরে চলে গেলে ঋষভ পন্থ (Rishabh Pant) নিজের জায়গা করে নেন। এইবছর আইপিএলেও দীনেশ কার্তিক সেইভাবে কিছু করতে পারেননি। তাই অনেকেই মনে করছেন যে তিনি আর ভারতীয় দলে জায়গা পাবেন না।

২) দীপক হুডা (Deepak Hooda)

দীপক হুডা ভারতের হয়ে ২১ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ৩৬৮ রান করেছেন। তিনি ভারতের হয়ে বেশ কিছু ভালো ইনিংস খেলার পর অনেকেই ভেবেছিলেন দীপক বিরাট কোহলির (Virat Kohli) ৩ নম্বর জায়গায় স্থায়ীভাবে আসতে পারেন। অস্ট্রেলিয়ায় ২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দলেও ছিলেন দীপক হুডা। তবে তিনি একটি ম্যাচ খেলারও সুযোগ পাননি। এরপর তিনি ভারতীয় দল থেকে ছিটকে যান। এই বছর আইপিএলেও দীপক লখনউ সুপার জয়েন্টসের (LSG) হয়ে খারাপ পারফরমেন্স করেন। তাই আবার ভারতীয় দলে ফিরে আসা তার জন্য কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে।

৩) ভুবনেশ্বর কুমার (Bhuvneshwar Kumar)

ভুবনেশ্বর কুমার দীর্ঘদিন ভারতীয় দলের বোলিং আক্রমণের অন্যতম সদস্য ছিলেন। কিন্তু ২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর তিনি ভারতীয় দলের বাইরে চলে যান। এই বিশ্বকাপে ভুবনেশ্বর ৬ টি ম্যাচে গুরুত্বপূর্ণ ৪ টি উইকেট তুলে নেন। এখনও পর্যন্ত তিনি ভারতের হয়ে ১২১ টি একদিনের ম্যাচে ও ৮৭ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে যথাক্রমে ১৪১ ও ৯০ টি উইকেট শিকার করেছেন। বর্তমানে এই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার ভারতীয় দলে জায়গা করে নেওয়ার জন্য লড়াই চালাচ্ছেন।