ইডেনে সুরক্ষিত থাকবে পাকিস্তান, বিশ্বকাপের আগে পাকিস্তানের নিরাপত্তা নিয়ে মন্তব্য করলেন CAB সভাপতি

ইতিমধ্যেই আইসিসি ওডিআই বিশ্বকাপের সূচীপত্র ঘোষণা হয়ে গেছে। আসন্ন বিশ্বকাপের মোট ৫ টি ম্যাচ রাখা হয়েছে কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে (Eden Gardens, Kolkata)। তার মধ্যে রয়েছে লিগপর্বের ৪ টি ম্যাচ এবং ১ টি সেমিফাইনাল। লিগপর্বে ভারতের ১ টি ম্যাচ রাখা হলেও, রাখা হয়েছে পাকিস্তান এবং বাংলাদেশের ২ টি করে ম্যাচ। এই প্রত্যেকটি ম্যাচ সফলভাবে আয়োজন করতে আত্মবিশ্বাসী ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অফ বেঙ্গলের (CAB) সভাপতি স্নেহাশীষ গঙ্গোপাধ্যায় (Snehasish Gangopadhyay)।

তার বক্তব্য অনুসারে বিনা দ্বিধায় জমকালোভাবে অনুষ্ঠিত হবে ইডেনের ম্যাচগুলি। গতকাল তথা মঙ্গলবার এক সাংবাদিক বৈঠকে স্নেহাশীষ বাবু বলেছেন, “ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অফ বেঙ্গলের উপর আস্থা রাখার জন্য আমি প্রথমেই বিসিসিআই সচিব জয় শাহকে ধন্যবাদ জানাই। আমরা সকলেই জানি ইডেন গার্ডেন্স একটা ঐতিহাসিক স্টেডিয়াম। ইতিপূর্বে আমরা বহু হাই প্রোফাইল ম্যাচের আয়োজন করেছি। এবারও আমরা যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসীকতার সাথে ম্যাচগুলি আয়োজন করতে পারব।”

সূচীপত্র ঘোষণার আগে আমরা সবাই দেখেছি, পাকিস্তান তাদের অধিকাংশ ম্যাচ কলকাতাতে এবং চেন্নাইয়ে খেলতে চেয়েছিল। পাকিস্তানের ইচ্ছামতো ভারত বনাম পাকিস্তান ম্যাচ কলকাতাতে না রেখে আমেদাবাদে রাখা হলেও, তাদের ২ টি ম্যাচ রাখা হয়েছে কলকাতাতে। এবং সেমিফাইনালে পাকিস্তান উঠলে তাদের ম্যাচটি রাখা হবে ইডেনে, এমনটাই প্রস্তাব দিয়েছে বিসিসিআই (BCCI)।

এবার আলোকপাত করা যাক, কলকাতাতে পাকিস্তানের নিরাপত্তা নিয়ে। নিরাপত্তার দিক দিয়েও পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড কলকাতাকে বাকি ভেনুগুলির দিক দিয়ে অনেকটাই এগিয়ে রেখেছে। এই বিষয়কে ঘিরে স্নেহাশীষ বাবুকে বলতে শোনা গেছে, “ইতিপূর্বে এই স্টেডিয়ামে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে অনেক ম্যাচ আয়োজন করা হয়েছে। ফলে এটা আমাদের কাছে কোনোরকম নতুন ঘটনা নয়। তাই তারা চেন্নাই বেঙ্গালুরুর তুলনায় কলকাতাকে এগিয়ে রেখেছে। আমরাও সেই চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত। আর সেটা গ্রহণ করার জন্য আমরা মুখিয়ে রয়েছি। স্টেডিয়ামে বিশ্বমানের নিরাপত্তা প্রদান করার ক্ষেত্রে আমাদের যতটা সম্ভব, নিজেদের উজাড় করে দেওয়ার চেষ্টা করবো।”