টেস্ট ক্রিকেট বিলুপ্ত হওয়া থেকে বাঁচাতে এবার ব্রহ্মাস্ত্র বিশ্বক্রিকেট কমিটির, ২০২৮ থেকে প্রতি সিরিজে চালু হবে এই নিয়ম

বর্তমানে তিন ফরম্যাটের মধ্যে প্রায় কমেই গেছে টেস্ট ক্রিকেট (Test Cricket)। দলগুলিকে খুব কমই দেখা যায় টেস্ট ক্রিকেট খেলতে। টেস্ট সিরিজও প্রায় কমে এসেছে, অন্যদিকে আবার সিরিজগুলিতে ম্যাচের সংখ্যাও কমে আসছে। একসময় ৩ থেকে ৫ টি টেস্ট ম্যাচ নিয়ে অনুষ্ঠিত হত একটি টেস্ট সিরিজ। আর এখন মাত্র ১ টি টেস্টেও সিরিজ খেলছে আন্তর্জাতিক দলগুলি।

এবার টেস্ট ক্রিকেটকে রক্ষা করতে নতুন ব্যাবস্থাপনা নিয়েছে মেরিলেবোন ক্রিকেট ক্লাব (MCC)। এই বিশ্ব ক্রিকেট কমিটি নতুন নিয়ম আনতে চলেছে বিশ্ব ক্রিকেটে। টেস্ট ক্রিকেট নিয়ে উঠে এসেছে এই আপডেট। এমসিসির নিরীখে জানানো হয়েছে যে, এর পরের ফিউচার ট্যুর পোগ্রামে (FTP) প্রত্যেকটি দলকে অন্তত পক্ষে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে হবে। এর মানে এরপর থেকে আর একটি ও দুটি ম্যাচে টেস্ট সিরিজ খেলা হবে না। ২০২৮ থেকে চালু হবে এই নিয়ম।

এমসিসি জানিয়েছে, “বর্তমান সময়ে যে রোমাঞ্চকর ক্রিকেট খেলা হচ্ছে। এই ঐতিহ্যবাহী ফরম্যাটে সিরিজের বিন্যাস সুষ্ঠ ভাবে পরিচালনার জন্য ডব্লিউসিসি ২০২৮ (WTC 2028) থেকে তথা পরবর্তী ফিউচার ট্যুর পোগ্রাম থেকে পুরুষদের টেস্ট সিরিজে নূন্যতম তিনটি ম্যাচে খেলতে হবে।” এমসিসির কথামতো সিরিজে তিনটির অধিক ম্যাচ খেলা হলে অসুবিধা নেই, কিন্তু সিরিজের গুরুত্ব বাড়াতে এবং বিজয়ী নিশ্চিত করতে অন্ততপক্ষে তিনটি ম্যাচ খেলতে হবে।

টেস্ট ক্রিকেট খেলা দলগুলির জন্য এই নিয়ম সুপারিশ করেছে এমসিসি। যাতে প্রত্যেকটি সিরিজেই ফলাফল উঠে আসে, তাই এই সিদ্ধান্ত ওই কমিটির। পূর্বে এইরকমভাবে খেলা হলেও, দিন দিন এই ফরম্যাটের মান কমেই আসছিলো। যাই হোক, ২০২৭ সাল পর্যন্ত সমস্ত দলের সমস্ত কিছুর সময়সূচি প্রকাশ আগেই হয়ে গেছে, তাই এর মধ্যে এই নিয়ম শুরু হল না। তবে ২০২৮ এর ফিউচার ট্যুর পোগ্রামের সময় প্রত্যেকটি দলের টেস্ট সিরিজে অন্ততপক্ষে থাকবে তিনটি ম্যাচ।