বিমানে রাখা বিপদজনক তরল খেয়ে অসুস্থ হয়ে সন্দেহের গন্ধ পাচ্ছেন মায়াঙ্ক, করেছেন থানায় পুলিশ কমপ্লেন্ট

২৬ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া কর্নাটক বনাম ত্রিপুরার ম্যাচের প্রথম ইনিংসে মায়াঙ্ক আগরওয়ালের ব্যাট থেকে ১০০ বলে ৫১ রান আসে।

ক্রিকেটারদের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের জন্য দ্রুত যাতায়াত করাতে হলে বিমান পরিষেবা ব্যবহার করতে হয়। বর্তমানে ভারতের ঘরোয়া ক্রিকেটের অন্যতম টুর্নামেন্ট রঞ্জি ট্রফি (Ranji Trophy) দেশের একাধিক রাজ্যের ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এই টুর্নামেন্টের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে সম্প্রতি কর্নাটক ত্রিপুরার (Karnataka vs Tripura match) বিপক্ষে মাঠে নামে। ম্যাচ শেষে বিমানে করে দিল্লি ফেরার সময় এবার কর্নাটকের অধিনায়ক মায়াঙ্ক আগরওয়াল (Mayank Agarwal) অসুস্থ হয়ে পড়লেন।

২৬ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া কর্নাটক বনাম ত্রিপুরা ম্যাচে কর্নাটক ২৯ রানে দুরন্ত জয় তুলে নেয়। ম্যাচের প্রথম ইনিংসে মায়াঙ্ক আগরওয়ালের ব্যাট থেকে ১০০ বলে ৫১ রান আসে। এরপর ম্যাচ শেষে গতকাল আগরতলা থেকে নয়াদিল্লিগামী বিমানে এই ভারতীয় ব্যাটসম্যান ওড়ার আগেই অসুস্থ হয়ে পড়েন। এমনকি তাকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সবচেয়ে অবাক করা বিষয় হলো মায়াঙ্ক আগরওয়ালের ম্যানেজার বিষয়টি তদন্ত করার জন্য পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছেন।‌

উল্লেখ্য বিমানে বসার পর ভারতীয় এই ক্রিকেটার সিটে রাখা একটি প্যাকেট থেকে জল ভেবে বিপদজনক তরল পান করে ফেলেন। যার ফলে তিনি দ্রুত অসুস্থ হয়ে যান। এই বিষয়ে পশ্চিম ত্রিপুরার এসপি কিরণ কুমার জানান, “মায়াঙ্ক আগরওয়াল একজন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। এখন তিনি স্থিতিশীল এবং অনেকটাই স্বাভাবিক। তবে তার ম্যানেজার বিষয়টি তদন্ত করার জন্য নিউ ক্যাপিটাল কমপ্লেক্স থানার অধীনে একটি নির্দিষ্ট অভিযোগ দায়ের করেছেন।”

তিনি আরও বলেন,” মায়াঙ্কের ম্যানেজার বলেছিলেন যে তিনি যখন বিমানে বসেছিলেন তখন তার সামনে একটি প্যাকেট রাখা ছিল। তিনি সেটি পান করেছিলেন কিন্তু হঠাৎ তার মুখে জ্বালা শুরু হয় এবং তিনি কথা বলতেও পারছিলেন না। এরপর মায়াঙ্কে আইএলএস হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তার মুখে ফোলাভাব ছিলো ও বিভিন্ন দাগ ছিলো।” রাজ্যের স্বাস্থ্য সচিব কিরণ গিট্টে (Kiran Gitte) বলেন, “পুলিশ তার অভিযোগ নিয়েছে এবং আমরা কী ঘটেছে তা তদন্ত করবো। মায়াঙ্কের ম্যানেজারের মতে তিনি আগামীকাল বেঙ্গালুরুতে যাবেন। তবে আগরতলায় যত ভালো চিকিৎসা পাওয়া যায় আমরা তাকে সরবরাহ করবো।”