CPL, SA20 এর এবার ইংল্যান্ডের এই টি-২০ লিগেও দল কিনতে চলেছে IPL ফ্রাঞ্চাইজিগুলি

বিভিন্ন দেশের টুর্নামেন্টে বোর্ডের নিয়ন্ত্রণ থাকলেও বিভিন্ন ব্যবসায়ী গোষ্ঠীর বিনিয়োগে লিগগুলি আরও জনপ্রিয় এবং আকর্ষণীয় হয়ে উঠছে। অন্যদিকে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের (ECB) দ্বারা পরিচালিত দ্যা হান্ড্রেড (The Hundred) টুর্নামেন্ট নতুন রাস্তা দেখালেও বর্তমানে বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে। এবার এই টুর্নামেন্টের সঙ্গে আইপিএলের (IPL) নাম যুক্ত হতে চলেছে।

দ্যা হান্ড্রেড টুর্নামেন্টটি ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসের বিখ্যাত শহরগুলির ভিত্তিতে ফ্র্যাঞ্চাইজ দল তৈরী করে ২০২১ সালে শুরু হয়। এই টুর্নামেন্টের বিশেষত্ব হলো এটি ১০০ বলের টুর্নামেন্ট। গত বছর এই টুর্নামেন্টে পুরুষ বিভাগ থেকে ওভাল ইনভিনসিবলস (Oval Invincibles) চাম্পিয়ন হয়। অন্যদিকে এই বছর দ্যা হান্ড্রেডের প্রস্তুতি এখন থেকেই শুরু হয়ে গেছে। এই বছর টুর্নামেন্টটি ২৩ জুলাই থেকে ১৮ আগষ্টের মধ্যে খেলা হবে।

এবার এর মধ্যেই দ্যা হান্ড্রেডকে নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সামনে এলো। জনপ্রিয়তার দিক থেকে এই টুর্নামেন্টটি ফ্রাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি লিগগুলির থেকে অনেকটাই পিছিয়ে থাকার কারণে সাম্প্রতিক সময় সমালোচনার মুখে পড়ে। ফলে দ্যা হান্ড্রেডকে বেসরকারীকরণের চিন্তাভাবনা সামনে এসেছে। এই টুর্নামেন্টটি এক বিলিয়ন ডলারে বিনিয়োগ আকর্ষণ করতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। এই টুর্নামেন্টকে নতুন করে সাজানোর জন্য ইতিমধ্যেই একাধিক কাউন্টি ক্লাব এই বিষয়টির ওপর সমর্থন জানিয়েছে।

ফলে আইপিএলের একাধিক ফ্র্যাঞ্চাইজি দলের মালিকরা ইতিমধ্যেই আগ্রহ প্রকাশ করছেন। মানি কন্ট্রোলের সূত্র অনুযায়ী সবকিছু ঠিকঠাক থাকলেই এবং ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড যদি ছাড় দেয় তাহলে ২০২৫ সালে দ্যা হান্ড্রেডে ললিত মোদি (Lalit Modi), এন শ্রীনিবাসনের (N Srinivasan) মতো ব্যবসায়ীরা টাকা বিনিয়োগ করবেন বলে জানা গেছে। উল্লেখ্য ললিত মোদি ভারতের অন্যতম প্রাক্তন ক্রিকেট কর্মকর্তা। তার ভাবনা চিন্তার মাধ্যমেই ২০০৮ সালে ভারতে আইপিএল শুরু হয় যা এই মুহূর্তে বিশ্বের অন্যতম সফল টি-টোয়েন্টি ফ্রাঞ্চাইজি লিগ।