WTC Final: এখনো কিছুই শেষ হয়নি, ২২ বছর আগের কেরামতি করে দেখালে ট্রফি আসবে ভারতেই

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে (WTC Final) প্রথম দিনে বল হাতে ভালো শুরু করেছিল ভারত। এমনকি ওপেনার উসমান খাওজাকেও অ্যাকাউন্ট খুলতে দেয়নি ভারতীয় বোলাররা। ডেভিড ওয়ার্নার ও মার্নাস লাবুশেনকেও লড়াই করতে দেখা গেছে। তবে দু’জনেই শেষ পর্যন্ত বড় ইনিংস খেলতে পারেননি। কিন্তু তিন উইকেট হারানোর পর ট্রাভিস হেড (Travis Head) ও স্টিভ স্মিথ (Steve Smith) ঝড় তোলেন। ১০৬ বলে সেঞ্চুরি করেন হেড। দলের সহ-অধিনায়ক স্টিভ স্মিথও সেঞ্চুরির কাছাকাছি পৌঁছে যান। স্টাম্পসের সময় অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ৩ উইকেটে ৩২৭ রান।

স্টিভ স্মিথ মাঠে নামার সঙ্গে সঙ্গেই তাকে সেট দেখাচ্ছিল। তিনি গত মাস থেকে ইংল্যান্ডে রয়েছেন এবং কাউন্টি ক্রিকেট খেলছিলেন। তাই তিনি এর সুবিধা পেয়েছেন এবং ভারতীয় বোলারদের কোনও সুযোগ দেননি। যখন হেড দ্রুত রান করছিলেন, স্মিথ উইকেটটি হাতের মুঠোয় রেখেছিলেন। ১৪৪ বলে নিজের ফিফটি পূর্ণ করেন তিনি। এরপর তিনি একটু দ্রুত খেলা শুরু করেন। শেষ সেশনে ব্যাটিং আরও সহজ হয়ে যায়। স্মিথও এর পুরো সুবিধা নিয়েছেন। একই সঙ্গে দ্রুত রান করেন হেড। ১৫৬ বলে ১৪৫ রানে অপরাজিত আছেন তিনি।

এখান থেকে ভারতীয় দলের জন্য একটাই পথ। বোলারদের যত দ্রুত সম্ভব অস্ট্রেলিয়াকে অলআউট করতে হবে। এ জন্য বোলারদের দ্বিতীয় দিনে শক্ত বোলিং করতে হবে। প্রায় ২২ বছর আগে চেন্নাই টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ভারতীয় বোলাররা যা করেছিলেন। ওই ম্যাচের প্রথম দিনে ৩ উইকেটে ৩২৬ রান তোলে অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু দ্বিতীয় দিনে শক্তিশালী প্রত্যাবর্তন করে ভারত তাদের ইনিংসকে ৩৯১ রানে গুটিয়ে দেয়।

ভারতীয় দল তাদের প্রথম ইনিংসে ৫০১ রান করেছিল। গ্লেন ম্যাকগ্রা, জেসন গিলেস্পি ও শেন ওয়ার্নের মতো বোলারদের সামনে ১২৬ রান করেন শচীন তেন্ডুলকার। শিব সুন্দর দাস ৮৪, রাহুল দ্রাবিড় ৮১ এবং ভিভিএস লক্ষ্মণ ৬৫ রান করেন। দ্বিতীয় ইনিংসে ২৬৪ রান তোলে অস্ট্রেলিয়া। চতুর্থ ইনিংসে ৮ উইকেটে ১৫৫ রান করে দুই উইকেটে ম্যাচ জিতে নেয় ভারত। সেই ম্যাচে হরভজন সিং (Harbhajan Singh) ১৫ টি উইকেট নিয়েছিলেন।

এই ফাইনাল ম্যাচেও হরভজন সিংয়ের মতো বোলিং করতে হবে একজন ভারতীয় বোলারকে। দ্বিতীয় দিনে প্রথম সেশনে বোলাররা সতেজ থাকবেন। এমন পরিস্থিতিতে ফিরে আসার সবচেয়ে ভালো সময় হবে সেখানেই। এরপর দ্বিতীয় ও তৃতীয় সেশনে ব্যাট হাতে জবাব দিতে হবে।