ফিরতে পারেন রানা-ভেঙ্কটেশ, টি-২০ অভিষেক হতে পারে সাহার, এমন হতে পারে এশিয়াডে ভারতের দল

২০২৩ সালের এশিয়ান গেমসে (Asian Games) ভারতীয় (India) ক্রিকেট দল অংশগ্রহণ করতে চলেছে। এশিয়ার অন্যতম জনপ্রিয় খেলা ক্রিকেট। তাই এশিয়ার অলিম্পিকে ক্রিকেটের মতো খেলা জায়গা করে নিয়েছে। ভারতের কাছে পৃথিবীর সেরা টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটার থাকায় এশিয়ান গেমসে স্বর্ণপদক জেতার সুবর্ণ সুযোগ রয়েছে।

সূত্র অনুযায়ী এশিয়া কাপের (Asia cup) পরেই একদিনের বিশ্বকাপের (ODI World Cup) মতো গুরুত্বপূর্ণ টুর্নামেন্ট থাকায় এশিয়ান গেমসে ভারতের মূল ক্রিকেট দলকে পাঠানো হবে না। এর ফলে ভারতের অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটারদের নিয়ে একটি দ্বিতীয় দল তৈরির প্রস্তুতি শুরু হয়ে গেছে। কী রকম হতে পারে সেই দল বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

ভারত এই সিরিজের জন্য ৫ জন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান এবং ২ জন উইকেট কিপার পাঠাতে পারে। ২০২১-২২ সালে বেশ কয়েকটি সিরিজে শিখর ধাওয়ান (Shikhar Dhawan) ভারতের দ্বিতীয় দলের অধিনায়ক হিসাবে ভালো পারফরম্যান্স করেছেন। তাই এশিয়ান গেমসের জন্য দল গঠন হলে শিখর ধাওয়ানকেই নেতৃত্বের দায়িত্ব দেওয়া উচিত। এই টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে দুই উইকেট কিপার হিসাবে জিতেশ শর্মা (Jitesh Sharma) এবং ঋদ্ধিমান সাহা (Wriddhiman Saha) থাকবেন। ভারতীয় ব্যাটিং-এর মিডল অর্ডারে তিনজন বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান এবং একজন ডান-হাতি ব্যাটসম্যান রাখা হবে। এই গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় কলকাতা নাইট রাইডার্সের (KKR) রিঙ্কু সিং (Rinku Singh), নীতিশ রানার (Nitish Rana) সঙ্গে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের (MI) তিলক বর্মা ও সূর্যকুমার যাদবকে বাছাই করা উচিত।

রবীন্দ্র জাদেজা (Ravindra Jadeja) এবং অক্ষর প্যাটেলের (Axar Patel) মতো গুরুত্বপূর্ণ অলরাউন্ডার এই টুর্নামেন্টে অংশ নিতে পারবেন না। তাই ক্রুনাল পান্ডিয়া (Krunal Pandya) এবং শাহবাজ আহমেদের (Shahbaz Ahmed) মতো স্পিন অলরাউন্ডার দলে জায়গা পেতে পারেন। শিবম দুবে (Shivam Dube) যিনি চেন্নাই সুপার কিংসের (CSK) হয়ে অসাধারণ পারফরমেন্স করেছিলেন পেস অলরাউন্ডার হিসাবে দলে আসতে পারেন। সুযোগ পেতে পারেন অলরাউন্ডার ভেঙ্কটেশ আইয়ারও (Venkatesh Iyer)।

ভারতের উচিত এশিয়ান গেমসের জন্য টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডে দীপক চাহার (Deepak Chahar), টি নটরাজন (T Natarajan) এবং মোহিত শর্মা (Mohit Sharma) ত্রয়ীকে দলে নেওয়া। চোট কাটিয়ে ফিরে এসে তিন পেসারই এখন দারুণ পারফর্ম করেছেন। মোহিত শর্মা এই বছর আইপিএলে শীর্ষ উইকেট সংগ্রাহকদের মধ্যে অন্যতম। অন্যদিকে লেগ স্পিনার পীযূষ চাওলা (Piyush Chawla) ও ঋদ্ধিমান সাহার শেষ ম্যাচ হিসেবে এই টুর্নামেন্টটি স্মরণীয় হয়ে থাকতে পারে। মিস্ট্রি স্পিনার বরুণ চক্রবর্তীও (Varun Chakaravarthy) বোলিং আক্রমণের অংশ হতে পারে।