অর্শিনের শতরান, মুশিরের দুর্ধর্ষ ইনিংস, আমেরিকাকে হারিয়ে অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে জয়ের হ্যাটট্রিক ভারতের

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে (U19 World Cup 2024) জয়ের হ্যাটট্রিক করেছে ভারতীয় দল। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে তাদের শেষ গ্রুপ ম্যাচে, ভারতীয় অনূর্ধ্ব -১৯ দল ২০১ রানে জিতেছে। ওপেনার আরশিন কুলকার্নির (Arshin Kulkarni) (১০৮ রান) সেঞ্চুরি ও মুশির খানের (Musheer Khan) (৭৩ রান) হাফসেঞ্চুরির সুবাদে পাঁচ ওভারে ৩২৬ রানের বিশাল স্কোর তোলে ভারত। জবাবে ভারতীয় বংশোদ্ভূত খেলোয়াড়ে সজ্জিত মার্কিন দল মাত্র ১২৫ রান করতে পারে। এটি দলটির টানা তৃতীয় পরাজয়। শেষ ম্যাচে ভারতও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ২০১ রানে জিতেছিল।

ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ পাওয়ার পর প্রত্যাশা মতোই ব্যাটিংয়ে আধিপত্য বিস্তার করে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ভারত। তবে ইনিংসের শেষ দিকে কিছুটা মোমেন্টাম ছিল আমেরিকান বোলাররা নিয়মিত বিরতিতে উইকেট নেওয়ায়। বাঁহাতি ব্যাটসম্যান আরশিন ১১৮ বলের ইনিংসে ৮টি চার ও ৩টি ছক্কা মারেন। সরফরাজ খানের ছোট ভাই মুশির ৭৬ বলে ৬টি চার ও ১টি ছক্কা মারেন। ১৫৫ রানের গুরুত্বপূর্ণ জুটিও খেলেন তারা।

মুশির আউট হওয়ার পর ভারতীয় ইনিংসকে আটকে রাখেন আরশিন। ১৪তম ওভারে ১৬ রানে জীবন পেয়ে তার পুরো সদ্ব্যবহার করে দারুণ এক সেঞ্চুরি করেন তিনি। ৩৬তম ওভারে মুশিরকে আউট করে দলকে আশার আলো দেখান স্পিনার ঋষি রমেশ। কয়েক ওভার পর অধিনায়ক উদয় সাহারান (Uday Saharan) (২৭ বলে ৩৫ রান) ও আরশিনকে ছয় বলের ব্যবধানে প্যাভিলিয়নে পাঠায় যুক্তরাষ্ট্র। শচীন ধাস (২০), প্রিয়াংশু মোলিয়া (অপরাজিত ২৭) ও আরাভেলি অবিনাশ (অপরাজিত ১২) ভারতকে ৩০০ রানের গণ্ডি পেরিয়ে নিয়ে যান।

একবারও প্রকাশ্যে ওপেন করতে পারেননি আমেরিকার ব্যাটসম্যানরা। প্রথম ওভারেই খাতা না খুলেই ভব্য মেহতাকে ফেরত পাঠান নমন তিওয়ারি। এরপর রাজ লিম্বানি (Raj Limbani) প্রণব চেট্টিপালায়ামের (২) শিকার করেন। এর পরও উইকেট পতন অব্যাহত ছিল। আমেরিকার ব্যাটসম্যানরাও রান তোলার বদলে উইকেট বাঁচানোর চেষ্টা করছিলেন। শেষ পর্যন্ত ৫০ ওভার খেলে ৮ উইকেটে মাত্র ১২৫ রান তুলতে পারে যুক্তরাষ্ট্র। ভারতের হয়ে ৪ উইকেট নেন নমন তিওয়ারি। সর্বোচ্চ ৪০ রান করেন উৎকর্ষ শ্রীবাস্তব।