WTC Final: হেডের শতরানে ব্যাকফুটে ভারত, পার্টনারশিপ ভাঙতে না পারলে ভুলতে হবে ট্রপির স্বপ্ন

আজ বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালের (WTC Final) প্রথম দিন। টসে জিতে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ভারতীয় দলের অধিনায়ক রোহিত শর্মা (Rohit Sharma)। প্রথম দিকেই উসমান খাওয়াজাকে ফিরিয়ে ম্যাচে আলাদা জোশ এনে দেন মহম্মদ সিরাজ (Mohammed Siraj)। কিন্তু সময় যত গড়ায় ততই ব্যাকফুটে পড়ে যায় ভারত।

প্রথম সেশনে ডেভিড ওয়ার্নার (David Warner) এবং মারনাস লাবুসেনের যুগলবন্দীতে ম্যাচকে আলাদা মোড়ে নিয়ে যায়। প্রথমদিকে অস্ট্রেলিয়া উইকেট হারালেও এই জুটি বেশ খানিকক্ষণ ক্রিজে রাজত্ব করেন। তারপরেই শার্দুল ঠাকুরের (Shardul Thakur) শিকার হন ডেভিড ওয়ার্নার। তিনি আউট হওয়ার পর ব্যাট করতে আসেন স্টিভেন স্মিথ (Steven Smith), আসতেই প্রথম থেকেই ডিফেন্সের মাধ্যমে নিজের পরিচয় দেন। প্রথম সেশন শেষে ২৪ ওভারে অস্ট্রেলিয়ার রান থাকে ৭৬/২।

দ্বিতীয় সেশনের শুরুতেই প্রথম বলেই মহম্মদ শামির (Mohammed Shami) বলে উইকেট হারান মারনাস লাবুসেন। ব্যাট করতে আসেন ট্রাভিস হেড (Travis Head)। কিন্তু সেখান থেকেই রান এগিয়ে নিয়ে যান ট্রাভিস হেড এবং স্টিভেন স্মিথ। ৭৬ রানে ৩ উইকেট পড়ে যাওয়ার পরেও এই জুটির যুগলবন্দীতে দ্বিতীয় সেশন শেষে অস্ট্রলিয়ার স্কোর ১৭১/৩। এদিকে নিজের অর্ধশতরান পূরণ করেন ট্রাভিস হেড।

এটিই ট্রাভিস হেডের ইংল্যান্ডের মাটিতে সর্বোচ্চ স্কোর। এইনিয়ে ইংল্যান্ডের কন্ডিশনে মাত্র ২ বার অর্ধশতরান পূরণ করেন তিনি। ক্রিজে তার ব্যাটিংয়ের সহায়তা করেন স্টিভেন স্মিথ। রবীন্দ্র জাদেজা এবং উমেশ যাদব নিজেদের দিক থেকে সম্পূর্ণ চেষ্টা করলেও, বারংবার সেই ফাঁদ এড়িয়ে যান হেড-স্মিথ জুটি।

এই প্রতিবেদনটি লেখার সময় অস্ট্রেলিয়ার স্কোর:

অস্ট্রেলিয়া: ২২৬/৩ (৫৮ ওভার)

ট্রাভিস হেড: ১০০(১০৬)*

স্টিভেন স্মিথ: ৫৩(১৫৬)*