বিশ্বকাপ শেষ হতেই চাপের মুখে BCCI, টুর্নামেন্টে ব্যবহৃত পাঁচটি পিচকে ‘গড়’ রেটিংস দিল ICC, তালিকায় ফাইনাল, সেমিফাইনালের পিচও

এই বছর একদিনের বিশ্বকাপ (World Cup 2023) গতমাসে শেষ হয়ে গেলেও এখনও ক্রিকেট প্রেমীদের মধ্যে আলোচনা অব্যাহত আছে। বিসিসিআই (BCCI) সফলভাবে এই গুরুত্বপূর্ণ টুর্নামেন্ট আয়োজন করলেও বিদেশি সংবাদমাধ্যম এবং সমর্থকরা একাধিক প্রশ্ন তুলে সেই সময় বিতর্কের সৃষ্টি করেছিলো। এবার এর মধ্যেই আইসিসি (ICC) বিশ্বকাপের ম্যাচেরগুলির পিচের রেটিং সামনে আনলো।

এই বছর বিশ্বকাপে ভারতীয় দল দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করে লিগ পর্বে একের পর এক কঠিন প্রতিপক্ষকে হারিয়ে দৃষ্টান্ত তৈরি করে। টুর্নামেন্টে ব্লু ব্রিগেডরা শ্রীলঙ্কাকে মাত্র ৫৫ রানে এবং দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৮৩ রানে অলআউট করলে পিচ পরিবর্তনের একাধিক অভিযোগ তোলে অনেকেই। তবে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বিশ্বকাপের ফাইনালে নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামে ভারতীয় দল প্রথম থেকেই চাপের মুখে পড়ে যায়। ম্যাচে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করে ব্লু ব্রিগেডরা ২৪০ রান সংগ্রহ করে। এরপর ব্যাট করতে এসে ট্রাভিস হেডের (Travis Head) ১৩৭ রানে ভর করে অস্ট্রেলিয়া মাত্র ৪ উইকেট হারিয়ে প্রয়োজনীয় রান তুলে নেয়।

এবার ফাইনাল ম্যাচ সহ বিশ্বকাপের লিগ পর্যায়ে ভারতের মোট ৫ ম্যাচের জন্য ব্যবহৃত পিচগুলিকে আইসিসি গড় রেটিং দিলো। ফাইনালের সঙ্গে সঙ্গে গ্ৰুপ পর্বে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামে, দক্ষিণ আফ্রিকা বিপক্ষে কলকাতার ইডেন গার্ডেন্স, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে লখনউতে এবং পাকিস্তানের বিপক্ষে আহমেদাবাদে ব্যবহৃত পিচগুলিকে এই রেটিং দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় সেমিফাইনালের পিচটিকেও গড় রেটিং পেয়েছে।

তবে মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে ভারত বনাম নিউজিল্যান্ডের মধ্যে প্রথম সেমিফাইনালের জন্য ব্যবহৃত পিচটি ভালো রেটিং পেয়েছে। এই ম্যাচেই বিরাট কোহলি (Virat Kohli) দুরন্ত শতরান করে শচীন তেন্ডুলকারের একদিনের ক্রিকেটে সর্বোচ্চ শতরানের রেকর্ড ভেঙে দেন। অন্যদিকে বর্তমানে ভারতের দক্ষিণ আফ্রিকার (India vs South Africa Match) সফরের পর ২০২৪ সালের প্রথমেই ইংল্যান্ড (India vs England Match) ভারতের মাটিতে ৫ ম্যাচের টেস্ট খেলার জন্য আসবে। সেই সময় পিচগুলিকে কীভাবে প্রস্তুত করা হয় সেইদিকে ক্রিকেট ভক্তরা এখন তাকিয়ে আছেন।