‘ভক্তদের কাছে দেশের থেকে পছন্দের প্লেয়াররা বড়’ ভারতীয় ক্রিকেটের কালো সত্য তুলে ধরলেন গৌতম গম্ভীর

ওভালে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালে (WTC Final) ভারতের হার মানতে পারছেন না কোনো ভক্ত সহ প্রাক্তন ক্রিকেট কিংবদন্তীরা। অজিদের সামনে লজ্জার হার হেরে বহু সমালোচনার শিকার হয়েছেন রোহিত শর্মা বিরাট কোহলিরা। ঠিক তেমনই একটি খবরের চ্যানেলের ইন্টারভিউতে ভারতের পারফর্মেন্সে নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করলেন দুই বিশ্বকাপ জয়ের অন্যতম নায়ক গৌতম গম্ভীর (Gautam Gambhir)।

ভারতের হারে বাকিদের মতো দুঃখিত হয়েছেন গৌতম গম্ভীরও। গতকাল সন্ধ্যায় এক সাংবাদিক সাক্ষাৎকারে উপস্থিত ছিলেন এই প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার। তাকে ভারতীয় ক্রিকেট সমন্ধে অনেক কিছু প্রশ্ন করা হয়। প্রত্যেকটি প্রশ্নের সুন্দরভাবে যুক্তিসহ উত্তর দিয়েছেন তিনি। ভারতীয় দলে সতীর্থদের সাথে কাটানো মুহুর্তেরও একাধিক প্রসঙ্গ টানেন গম্ভীর।

সেই সাংবাদিক বৈঠকে গম্ভীরকে বলতে শোনা গেছে, “বর্তমানে এই সত্যি বিশ্বের সকলকেই জানা উচিত। আর এটাই সময় আমার সেইকথাগুলি বলার। বর্তমানে আমাদের দেশের মানুষজনের কাছে আমাদের দেশ বড় নয়। অনেকের কাছে সবসময় দেশের আগে একজন খেলোয়াড়, তাদেরকে নিয়েই মাতামাতি করে তারা। দেশ নিয়ে কোনোরকম মাথাব্যাথাও নেই তাদের। ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়ার মতো বাকি দেশগুলির কাছে সবসময় দেশ এগিয়ে একজন খেলোয়াড়ের থেকে। কিন্তু আমাদের দেশে দেশের থেকে বেশি প্লেয়ারদের ভালোবাসা হয়, প্লেয়াররা পূজিত হয়।”

এই সম্পর্কিত কারণের জন্য গম্ভীর দায়ী করেছেন ব্রডকাস্ট, মিডিয়া এবং সোশ্যাল মিডিয়ার কিছু মানুষজনকে। তিনি নিশ্চিত করেন, কোনো একজন অর্ধশতরান করলেই মিডিয়া, ব্রডকাস্টাররা সেই খেলোয়াড়কে নিয়ে মাতামাতি করে। তাতে দেশের কি এলো বা গেলো তাতে নজর রাখে না অনেকেই। বর্তমানে ব্রডকাস্ট, মিডিয়ার লোকেদের এই কাজটি দালালির থেকে কোনো অংশে কম কিছু নয়।

১৯৮৩ বিশ্বকাপের কথা উঠতে গম্ভীর বলেছেন, “১৯৮৩ বিশ্বকাপের ট্রফি হাতে শুধু কপিল দেবের ছবিই সব জায়গায় দেখতে পাওয়া যায়। কেনো সেখানে সেইবছর বিশ্বকাপ সেমিফাইনাল এবং ফাইনালে ম্যাচের সেরা পুরষ্কারপ্রাপ্ত মহিন্দার অমরনাথের ছবি দেখানো হয় না। এইসকল মানুষেরা কি আদেও সেই অমরনাথ সম্পর্কে জানেন।”