অবশেষে মিলল হার্দিকের জেরক্স কপি, একই ম্যাচে ১১৭ রান সাথে ৪ উইকেট, হার্ড হিটিং সাথে ডেথ বোলিং

ক্রিকেট খেলাতে যেকোনো ফরম্যাটেই শতরান করাটা একটি বিশেষ অর্জন। বিশেষ করে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ১০০ করাতো এক সময় প্রায় অসম্ভব মনে হতো। গতকাল মহারাষ্ট্র প্রিমিয়ার লিগে (MPL) আর্শিন কুলকার্নি (Arshin Kulkarni) একটি ম্যাচে ব্যাট হাতে শতরান করার সঙ্গে সঙ্গে বল হাতেও শেষ ওভারে দলের হয়ে ৬ রান ডিপেন্ড করে সাথে ৪ টি উইকেটও তুলে নেন।

সোমবার মহারাষ্ট্র প্রিমিয়ার লিগে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে ঈগল নাসিক (Eagle Nashik) ও পুণেরি বাপ্পা (Puneri Bappa) মুখোমুখি হয়। এইদিন ঈগল নাসিকের হয়ে আর্শিন কুলকার্নি অসাধারণ অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্স করে সকলকে চমকে দিয়েছেন। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে মহারাষ্ট্রের অনূর্ধ্ব-১৯-এর এই ক্রিকেটার দুরন্ত শতরান করেন। আর্শিন মাত্র ৫৪ বলে ১১৭ রান করেন। এই দিন তার ব্যাট থেকে আসে ১৩ টি অসাধারন ওভার বাউন্ডারি।

অধিনায়ক রাহুল ত্রিপাঠীর (Rahul Tripathi) ৪১ রান ও আর্শিন কুলকার্নি ১১৭ রানের ওপর ভর করে ঈগল নাসিক ২০৩ রান তোলে। দ্বিতীয় ইনিংসেও বল হাতে চমক দেখান আর্শিন। মাত্র ৪ ওভার বল করে ২১ রান দিয়ে গুরুত্বপূর্ণ ৪ টি উইকেট তুলে নেন। এখানেই শেষ নয় দলের হয়ে শেষ ওভারে মাত্র ৬ রান বাকি থাকলেও আর্শিন বল হাতে আটকে দেন। মাত্র ১ রানে জয় পায় ঈগল নাসিক।

এর আগেও আর্শিন কুলকার্নি তার দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের মধ্যমে মুগ্ধ করেছেন। ২০২২ সালে বিনু মানকড় ট্রফিতে সর্বোচ্চ রান করেন তিনি। এই টুর্নামেন্টে আর্শিন ২৬৮ রানের সঙ্গে সঙ্গে দুটি দুর্দান্ত শতরান করেছিলেন। কোচবিহার ট্রফিতেও তিনি সর্বোচ্চ রান সংগ্রহ ছিলেন। এই বছর মহারাষ্ট্র প্রিমিয়ার লিগে এখনো পর্যন্ত তিন ম্যাচে আর্শিন ১৯৫ রান করেছেন। একসাথে বল হাতে তিনি নিয়েছেন ৫ টি উইকেট।