অভিমুন্যর ০, রিঙ্কুর অন্যবদ্য ব্যাটিং, ধ্রুব শোরের শতরান, জানুন দুলীপ ট্রফীর প্রথম দিনে কে কেমন খেলল

ফাস্ট বোলার মণিশঙ্কর মুরাসিংহের (Manishankar Murasingha) পাঁচ উইকেটের সুবাদে বুধবার দুলীপ ট্রফির কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম দিনে সেন্ট্রাল জোনকে ১৮২ রানে গুটিয়ে দেয় ইস্ট জোন। ত্রিপুরার এই ফাস্ট বোলার ৪২ রানে পাঁচ উইকেট নেন, যার কারণে সেন্ট্রাল জোনের দল বড় স্কোর করতে পারেনি। ইস্ট জোন এখনও ১৫০ রানে পিছিয়ে আছে। মেঘলা আকাশে মুরাসিংহ তার নির্ভুল বোলিং এবং মুভমেন্ট দিয়ে সেন্ট্রাল জোনের ব্যাটসম্যানদের অনেক কষ্ট দিয়েছিলেন।

সেন্ট্রাল জোনের ব্যাটিং ইউনিটের সবচেয়ে শক্তিশালী খেলোয়াড় ছিলেন রিঙ্কু সিং (Rinku Singh), কিন্তু বাঁহাতি স্পিনার শাহবাজ আহমেদের (Shahbaz Ahmed) বলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি, যার পরে দলের ব্যাটিং লাইনআপ ভেঙে পড়তে শুরু করে। রিঙ্কু সিং ৩৮ রান করেন, যা সেন্ট্রাল জোন দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত স্কোরও ছিল। রিঙ্কু ও উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান উপেন্দ্র যাদবের মধ্যে চতুর্থ উইকেটে ৬১ রানের পার্টনারশিপের সুবাদে সেন্ট্রাল জোন চার উইকেটে ৮৬ রান থেকে ১৪৭ রান তুলতে সক্ষম হয়।

এই পার্টনারশিপের ইতি টানেন মুরাসিংহ। ইস্ট জোনেরও শুরুটা খুব বাজে ছিল, অধিনায়ক অভিমন্যু ঈশ্বরন (Abhimanyu Eswaran) খাতা খুলতে পারেননি এবং নিজের প্রথম বলে প্যাভিলিয়নে পৌঁছে যান। ফাস্ট বোলার আভেশ খান (Avesh Khan) তার উইকেট শিকার করেন। শান্তনু মিশ্রকে আউট করে আরেকটি উইকেট নেন আভেশ।

টুর্নামেন্টের আরেক ম্যাচে নর্থ জোনের সঙ্গে লড়ছে নর্থ ইস্ট জোন। প্রথমে ব্যাট করে নর্থ জোন ৬ উইকেটে ৩০৬ রান তোলে। নর্থ জোনের হয়ে ১৩৫ রান করেন ধ্রুব শোরে (Dhruv Shorey)। নিশান্ত সান্ধু ১১৩ বলে ৭৬ রান নিয়ে খেলছেন। ৩১ রান করেন প্রভসিমরান সিং (Prabhsimran Singh)।